যশোর আজ রবিবার , ১ অক্টোবর ২০২৩ ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. প্রবাস
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

হোটেল নারী শ্রমিক হত্যা মামলার প্রধান আসামী গ্রেফতার   

প্রতিবেদক
Jashore Post
অক্টোবর ১, ২০২৩ ৩:০০ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

চন্দন মিত্র,দিনাজপুর প্রতিনিধি :: দিনাজপুরে চাঞ্চল্যকর হোটল নারী শ্রমিক জয়া বর্মণ ( সুন্দরী )হত্যা মামলার প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ সদস্যরা।সে দিনাজপুর সদর উপজেলার মুরাদপুর দামপুকুর এলাকার পালক পিতা মৃত আশরাফ আলীর ছেলে মোঃ তরিকুল ইসলাম ওরফে চান্দু ( ৩২)।

রবিবার ( ১অক্টোবর )সকাল ১২টায় দিনাজপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের এ তথা নিশ্চিত পুলিশ সুপার শাহ ইফতেখার আহমেদ পিপিএম।

এ সময় পুলিশ সুপার বলেন গত ২৭ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬টা ৩০মিনিটে দিনাজপুর মির্জাপুর বাস টার্মিনাল সংলগ্ন কালুর মোড়ে টার্মিনাল ক্যান্টিনে সাউদিয়ার এক নারী শ্রমিককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং হাতের কব্জি কেটে গুরুতর জখম পরে এক দুষ্কৃকৃতীকারী পালিয়ে যায় ।পরে ঐ নারী শ্রমিক জয়া বর্মণ কে এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাবার পর সেখানে তার মৃত্যু হয় ।

কালুর মোড় ,রাজবাটি সহ আশেপাশের সিসি ফুটেজ সংগ্রহ করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( অর্থ ও প্রশাসন ) মোঃ মোমিনুল করিম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার( অপরাধ ) আবদুল্লাহ আল মাসুম এর সমন্বিত পরিকল্পনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সদর সার্কেল শেখ জিন্নাহ আল মামুনের নেতৃত্বে কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ হোসেন সঙ্গীয় অফিসার ফোর্স সহায়তায় তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে সিসিফুটেজের মাধ্যমে আসামীকে শনাক্ত করে।

আসামী পলাতক থাকায় আসামী ধরতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ১অক্টোবর ভোরে দিনাজপুর খানসামা উপজেলার পাকের হাট বাজারের মাহিন সুইট নামীয় হোটেলের ভিতর হতে হত্যাকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।


আসামী মোঃ তরিকুল ইসলামকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বাদে জানা যায় সে এবং নিহত জয়া বর্মণ টার্মিনাল ক্যান্টিন সাউদিয়ায় কাজ করতো এবং সেই সুবাদে তাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং বিয়ে নিয়ে বিবাদে জড়ায় । এরই ধারাবাহিকতায় মোঃ তরিকুল ইসলাম ওরফে চান্দু নারী শ্রমিক জয়া বর্মণকে কুপিয়ে হত্যা করে।

নিহত জয়া বর্মণ এর স্বামী সপাল রায় গত ২৮সেপ্টেম্বর অজ্ঞাতনামা আসামীরদের বিরুদ্ধে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।যাহার মামলা নাম্বার ৫৭/৭৩৮ ।

পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিং কালীন উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অর্থ ও প্রশাসন মোঃ মোমিনুল করিম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার অপরাধ মোঃ আবদুল্লাহ আল মাসুম,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল জিন্নাহ আল মামুন,দিনাজপুর কোতোয়ালি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ফরিদ হোসেন প্রমুখ।

সর্বশেষ - সারাদেশ