যশোর আজ রবিবার , ১৩ মার্চ ২০২২ ৩১শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

রাসায়নিক হামলা হলে রাশিয়াকে চড়া মূল্য দিতে হবেঃবাইডেন

প্রতিবেদক
Jashore Post
মার্চ ১৩, ২০২২ ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ
রাসায়নিক হামলা হলে রাশিয়াকে চড়া মূল্য দিতে হবেঃবাইডেন
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন,ইউক্রেনে রাসায়নিক অস্ত্রের হামলা হলে রাশিয়াকে চড়া মূল্য দিতে হবে। ইতিমধ্যে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া।

তবে জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক প্রতিনিধি ইজুমি নাকামিত্সু বলেন, ইউক্রেন জীবাণু অস্ত্র কর্মসূচি চালাচ্ছে বলে রাশিয়া যে অভিযোগ করেছে,তার পক্ষে কোনো প্রমাণ পায়নি জাতিসংঘ।

শুক্রবার মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে বাইডেন বলেন, আমার কাছে যে গোয়েন্দা তথ্য আছে, সে বিষয়ে কিছু বলব না। কিন্তু রাসায়নিক অস্ত্রের ব্যবহার হলে রাশিয়াকে চড়া মূল্য দিতে হবে। রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আরো কিছু নিষেধাজ্ঞা আরোপের পর তিনি এ কথা বলেন।

এর আগে গত বুধবার হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র জেন সাকি দাবি করেন, রাশিয়া ইউক্রেনে রাসায়নিক বা জৈব অস্ত্র ব্যবহার করার প্রাথমিক প্রস্তুতি নিয়েছে। এ ব্যাপারে আমাদের সতর্ক হতে হবে। রাসায়নিক অস্ত্রের মজুত নিয়ে কয়েক দিন ধরেই একে অন্যকে দোষারোপ করে আসছে রাশিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র।

এ ব্যাপারে জেন সাকি বলেন,ইউক্রেনে যুক্তরাষ্ট্র জৈব ও রাসায়নিক অস্ত্রের ল্যাব পরিচালনা করছে বলে রাশিয়া যে দাবি করেছে তা অযৌক্তিক বরং এই মিথ্যা দাবি করে মস্কো তাদের পরবর্তী উস্কানিহীন হামলার ন্যায্যতা প্রতিষ্ঠার ‘নিশ্চিত ষড়যন্ত্র’ করছে।

ইতিমধ্যে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ তুলেছে রাশিয়া। তবে জাতিসংঘের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক প্রতিনিধি ইজুমি নাকামিত্সু বলেন, ইউক্রেন জীবাণু অস্ত্র কর্মসূচি চালাচ্ছে বলে রাশিয়া যে অভিযোগ করেছে,তার পক্ষে কোনো প্রমাণ পায়নি জাতিসংঘ।

এদিকে শুক্রবার এক টুইট বার্তায় বাইডেন বলেন, রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেন যুদ্ধে কখনোই জয়ী হবেন না। পুতিন আশা করেছিলেন,যুদ্ধ ছাড়াই তিনি ইউক্রেনকে নিয়ন্ত্রণ করবেন, ইউরোপীয় ঐক্যে ফাটল ধরাবেন,ন্যাটো জোটকে দুর্বল করবেন এবং যুক্তরাষ্ট্রকে বিভক্ত করবেন, কিন্তু তিনি ব্যর্থ হয়েছেন।

অন্য এক টুইট বার্তায় বাইডেন স্পষ্ট করেছেন যে, ইউক্রেনে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নেবে না যুক্তরাষ্ট্র। তিনি বলেন, আমরা ন্যাটো অঞ্চলের প্রতি ইঞ্চি জায়গা পূর্ণ শক্তি দিয়ে রক্ষা করব। কিন্তু আমরা ইউক্রেনে রাশিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করব না। রাশিয়া ও ন্যাটোর সরাসরি যুদ্ধ মানে তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ। এ ধরনের কিছু ঠেকাতে আমাদের অবশ্যই সংগ্রাম করতে হবে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলার প্রতিক্রিয়ায় একের পর এক নিষেধাজ্ঞা দিয়ে চলেছে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্ররা। এবার রুশ ধনকুবের ভিক্টর ভেকসেলবার্গ, রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিনের মুখপাত্র মিদিত্রি পেসকভের পরিবারের তিন সদস্য এবং একাধিক আইনপ্রণেতার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

শুক্রবার ওয়াশিংটনের জারি করা এই নিষেধাজ্ঞায় পড়েছেন রাশিয়ার দ্বিতীয় বৃহত্তম ঋণদাতা প্রতিষ্ঠান ভিটিবি ব্যাংকের পরিচালনা পরিষদের ১০ জন এবং রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ দুমার ১২ সদস্যও। গত ৩ মার্চ পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল। এবার তার স্ত্রী ও প্রাপ্তবয়স্ক দুই সন্তানকেও অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গতকাল আলজাজিরার এক খবরে বলা হয়েছে, মার্কিন কর্মকর্তারা বলেছেন, কিয়েভকে উচ্চ সংবেদনশীল অস্ত্র যেমন বহনযোগ্য আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা বা স্টিংগার মিসাইল সরবরাহ করছে। স্টিংগার মিসাইল ব্যবহার করে যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করা যায়। এটা ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপ করা হয়।তবে এক্ষেত্রে তাদের আশঙ্কা কিছু অস্ত্র ভুল হাতেও চলে যেতে পারে।

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল