যশোর আজ রবিবার , ৭ জুলাই ২০২৪ ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

বেনাপোলে পলি চক্রের ভয়ংকর ফাঁদে একাধিক যুবক

প্রতিবেদক
Jashore Post
জুলাই ৭, ২০২৪ ১২:১৬ অপরাহ্ণ
বেনাপোলে পলি চক্রের ভয়ংকর ফাঁদে একাধিক যুবক
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

বেনাপোল প্রতিনিধি :: যশোরের বেনাপোল স্থল বন্দর এলাকায় প্রতারক পলি চক্রের ফাঁদে পড়ে একাধিক যুবক অর্থ খুয়িয়েছে বলে অভিযোগ মিলেছে। বিষয়টি নিয়ে ভূক্তভোগীরা বেনাপোল পোর্ট থানায় লিখিত অভিযোগ করেও সূরাহ মেলেনি। পলি ওরফে সাথী খাতুন/ তাসলিমা ও তার চক্রের সদস্যরা এতটাই বেপরোয়া যে প্রশাসন এখনো তাদের টিকিটি পর্যন্ত স্পর্শ করতে পারেনী।

পলি ওরফে সাথী শার্শার কন্যাদাহ গ্রামের মালেকের কন্যা ও বেনপোল বলফিল্ড এলাকায় অবস্থিত অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা আব্দুল জব্বারের বাড়ির ভাড়াটিয়া।পলির ছত্রছায়ায় এলাকার একাধিক সুন্দরী তরুনী ও ওঠতি বয়সী যুবকেরা প্রতারণা কান্ডে জড়িত বলে জানা গেছে।

পলির প্রতারণার স্বীকার বেনাপোল পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড বেনাপোল গ্রামের মৃত- সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোঃ মাহসিনুল ইসলাম জানান,সে পেশায় একজন ব্যবসায়ী গত ৮ই মে২০২৪ ইং তারিখে তার ফোনে প্রতারক পলি কল করে সাথি পরিচয় দিয়ে বেনাপোল বলফিল্ড এর পাশে দেখা করতে বলে। সেমত সে তার স্ত্রীকে নিয়ে দেখা করতে গেলে পলি বিভিন্ন প্রকার কুরুচিপূর্ন কথাবার্তা,গালিগালাজসহ তাকে সন্মানহানীর ভয়ভিতী দেখিয়ে ৫লাখ টাকা দাবী করে।

এ সময় পলির অজ্ঞাতনামা সহযোগীরা এসে অসৎ উদ্দেশ্যে দাবীকৃত টাকা আদায়ের লক্ষ্যে বিভিন্ন প্রকার অশালীন কথা বলতে থাকে। তখন সে ডাক চিৎকার দিলে পলির সহযোগীরা ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যায়। বিষয়টি বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশকে জানিয়ে তিনি ঐ রাতেই বেনাপোল পোর্টথানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে আরো জানান।

এ বিষয়ে বেনাপোল পৌরসভার ৩ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ মিজানুর রহমান জানান,পলি নামের ঐ মেয়েটি বিভিন্ন সময়ে লোকজনকে ফোন করে ডেকে এনে ব্ল্যাকমেলিং করে টাকা পয়সা কেড়ে নেই বলে অভিযোগ পেয়েছি। পুটখালী এলাকার বাসিন্দা বাপ্পীর অভিযোগ ঘটনার সত্যতা যাচায় করে তাকে সতর্ক করেলেও সে তার প্রতারনা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানতে পেরেছি।

অভিযোগ বিষয়ে বেনাপোল পোর্টথানার অফিসার ইনচার্জ ( ওসি ) সুমন ভক্তের নিকট জানতে চাইলে তিনি প্রতিনিধিকে জানান,পলির অভিযোগ বিষয়ে তিনি জ্ঞাত নন। বিষয়টি  খতিয়ে দেখবেন।

পলির বিষয়ে এলাকায় ব্যাপক খোঁজ খবর নিতে গিয়ে বেনাপোল পোর্টথানাধীন গাজিপুর গ্রামের মৃত আব্দুল করিমের ছেলে বাবুলের সাথে প্রতারণার ঘটনা জানা যায়। বাবুলের সহিত যোগাযোগ করলে তিনি পলি চক্রের ভংয়কর প্রতারনার বিষদ জানিয়ে বলেন,গত ১৮ই মার্চ ২৪ইং তারিখে পলি ০১৭২৭৩৬১৩৪২ নাম্বার দিয়ে কল দিয়ে ভালোবাসার প্রলোভন দেখিয়ে আমাকে দেখা করতে বলে।

সেমত আমি দূর্গাপুর গ্রামে দেখা করতে গেলে জনৈক্য রফিকুলের বাড়ির পাশের একটি বাড়িতে আমাকে ডেকে নিয়ে ব্ল্যকমেলিং করে ৩লাখ টাকা দাবী করে নানা প্রকার হুমকী ধামকী দেই। এসময় পলির সহযোগী জোসনা, স্বপন,নজরুল, ফরহাদ আমাকে মারধর করতে থাকে। এক পর্যায়ে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপন দিয়ে আমি মুক্ত হই।

পরেএকজন ব্যবসায়ী সদস্য হিসাবে আমি বিষয়টি ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতিকে অবগত করলে সালিশের মাধ্যমে টাকা ফেরত দেওয়ার সিন্ধান্ত হলেও আমি এখনো টাকা ফেরত পাইনি। অভিযোগ বিষয়ে জানতে পলির মুঠো ফোনে একাধিকবার কল করলেও ফোনবন্ধ থাকায় সংযোগ না মেলায় বিবৃতি জানা যাইনি।

বেনাপোল পৌরসভার ৫নং দিঘীরপাড় ওয়ার্ড এর কাউন্সিলর ও বেনাপোল ট্রান্সপোর্ট মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক মোঃ আজিম উদ্দিন গাজী অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে জানান,সালীশে অভিযোগের সত্যতা মেলায় পলি চক্রের সদস্যদের কাছ হতে বাবুলের টাকা ফিরিয়ে দেওয়ার লিখিত শর্তে  ৩ দিন সময় দেওয়া হয়েছিলো। এলাকায় তারা প্রতারক বলে পরিচিত। পলি চক্রের বিরুদ্ধে প্রশাসনকে মৌখিক ও লিখিত ভাবে একাধিক ভূক্তভোগী জানিয়েছে বলে শুনলেও কার্যত পলি চক্রের বিরুদ্ধে আজও পর্যন্ত প্রশাসনিক ব্যবস্থা না নেওয়ায় আমরা উদ্বিগ্ন ।

পলি চক্রের বিষয়ে যশোরের নাভারন সার্কেলের দায়িত্বরত সহকারী পুলিশ সুপার নিশাত আল নাহিয়ান এর নিকট জানতে চাইলে তিনি প্রতিনিধিকে বলেন,ভূক্তভোগীদের আমার সহিত যোগাযোগ করতে বলুন।

উল্লেখ্য পলি চক্রটি দীর্ঘদীন ধরে স্যোশ্যাল প্লাটফর্ম ব্যাবহার করে বেনাপোল ও পাশ্ববর্তী এলাকার ধনাঢ্য ব্যবসায়ী ও চাকরিজিবীদের টার্গেট করে ফোনে প্রেমজ সম্পর্ক গড়ে তুলে পরে দেখা করার জন্য ডেকে আপত্তিকর ছবি ও ভিডিও ধারনকরে পরে তা ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে ব্লাকমেলিং করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে ।

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল