যশোর আজ রবিবার , ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ ঘটনায় উত্তাল জাবি

প্রতিবেদক
Jashore Post
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৪ ৩:৫১ অপরাহ্ণ
বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে ধর্ষণ ঘটনায় উত্তাল জাবি
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

বিশেষ প্রতিবেদক :: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ( জাবি ) মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে প্রশাসনিক ভবন অবরোধ করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

রবিবার (৪ ফেব্রুয়ারি ) দুপুর ১২টায় এই অবরোধ শুরু করেন তারা। অবরোধের এক পর্যায়ে উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করেন আন্দোলনরত শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। এ সময় উপাচার্যের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের বাকযুদ্ধ হয়। শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের কাছে তিনটি দাবি উত্থাপন করেন।

সেগুলো হলো- একঘণ্টার মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়কে বাদী হয়ে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা করা, তিন দিনের মধ্যে হলগুলোতে থাকা অছাত্রদের বের করতে হবে এবং ধর্ষক ও তার সহযোগিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

এসব দাবির পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জরুরি সিন্ডিকেট সভা করে বিষয়টি নিরসনের আশ্বাস দেন। কিন্তু এ প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে মামলা করার পর জরুরি সিন্ডিকেটে বসার প্রস্তাব করেন শিক্ষার্থীরা।

একঘণ্টার মধ্যে মামলা করা না হলে সিন্ডিকেট সভা বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেন তারা। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রশাসনিক ভবনের সামনে আন্দোলন চলছে।

শনিবার ( ৩ ফেব্রুয়ারি ) দিবাগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন হলে স্বামীকে আটকে রেখে সংলগ্ন জঙ্গলে এক নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

এই ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিকবিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, একই বিভাগের সাগর সিদ্দিকী ও হাসানুজ্জামান এবং উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী সাব্বির হাসানকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

জানা গেছে, ওই দম্পতির বাড়িতে ভাড়া থাকতো অভিযুক্ত মামুন।এর পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগীর স্বামীকে বিশ্ববিদ্যালয়ে ডেকে নিয়ে আসে।

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের এলে তাকে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মশাররফ হোসেন হলের ‘এ’ ব্লকের ৩১৭ নম্বর কক্ষে আটকে রাখে অভিযুক্তরা। এরপর তার স্ত্রীকে দিয়ে নিজের রেখে আসা জিনিসপত্র আনতে বলে মামুন।

মামুনের জিনিসপত্র নিয়ে ক্যাম্পাসে আসেন ভুক্তভোগী নারী।পরে জিনিসপত্র নিয়ে মামুন হলের ওই কক্ষে রেখে আসে। এরপর তার স্বামী অন্যদিক থেকে আসবে বলে ওই নারীকে হল সংলগ্ন জঙ্গলে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তাকে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ ওই নারীর।

এ বিষয়ে সাভার মডেল থানার ওসি ( তদন্ত ) আব্দুর রাসিক বলেন,ভুক্তভোগী থানায় উপস্থিত হয়ে ঘটনা জানিয়েছেন। মামলা হয়েছে। চার জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল