যশোর আজ শুক্রবার , ১৫ এপ্রিল ২০২২ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

বাজার কাঁপাতে এ বছর আসছে অ্যাপলের যেসব পণ্য 

প্রতিবেদক
Jashore Post
এপ্রিল ১৫, ২০২২ ৯:০২ পূর্বাহ্ণ
বাজার কাঁপাতে এ বছর আসছে অ্যাপলের যেসব পণ্য 
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

অ্যাপল প্রতি বছর গড়ে তিন থেকে চারটি ইভেন্টের আয়োজন করে। সাধারণত মার্চ মাসে স্প্রিং ইভেন্ট ( বসন্ত ইভেন্ট ),জুনে ডেভেলপারদের সম্মেলন ও সেপ্টেম্বরে আইফোন ও অ্যাপল ওয়াচকে কেন্দ্র করে একটি ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হয়।ধারণা করা হচ্ছে,গোটা ২০২২ সালজুড়েই বাজার কাঁপাতে একের পর এক আসবে পণ্যগুলো।

স্প্রিং ২০২২- মার্চ ৮ ‘পিক পারফরম্যান্স’ ইভেন্ট

অ্যাপল ২০২২ সালের মার্চ মাসে একটি ‘পিক পারফরম্যান্স’ ইভেন্টের আয়োজন করেছিল। বছরের প্রথম দিকে বাজারে আসা পণ্যের প্রদর্শনী করা হয় সেখানে। এ ইভেন্টে ফাইভজি, এ১৫ চিপযুক্ত তৃতীয়-প্রজন্মের আইফোন এসই, এমওয়ান চিপ, পঞ্চম-প্রজন্মের আইপ্যাড এয়ার, ম্যাক মিনি বা ম্যাক প্রো এবং ২৭ ইঞ্চির ফাইভকে (5k) স্টুডিও ডিসপ্লে উন্মোচন করা হয়৷

জুন ইভেন্ট -ডব্লিউ ডব্লিউডিসি

সবসময় জুন মাসে তাদের বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে থাকা ডেভেলপারদের নিয়ে সম্মেলন করে অ্যাপল। ২০২২ সালেও এর ব্যত্যয় ঘটবে না বলে আশা করা যাচ্ছে। ডব্লিউডব্লিউডিসি প্রায়ই মাসের প্রথম দিকে অনুষ্ঠিত হয় এবং গত দুই বছর ধরে, এটি ব্যক্তিগত ইভেন্ট থেকে একটি ডিজিটাল ইভেন্টে পরিণত হয়েছে। এই আয়োজনে আইওএস ১৬, আইপ্যাডওএস ১৬, ওয়াচওএস ৯, টিভিওএস ৯ ও ম্যাকওএস ১৩-কে দেখা যেতে পারে।

ব্লুমবার্গের মার্ক গুরম্যান এ সম্পর্কে বলেন, মার্চ ইভেন্টের পরে, অ্যাপল মে বা জুনের কাছাকাছি সময়ে নতুন ম্যাক চালু করার পরিকল্পনা করছে। তাছাড়া এই পণ্যগুলোর ব্যাপারে ঘোষণা দেওয়ার জন্য ডব্লিউডব্লিউডিসি হবে আদর্শ সময়।

ম্যাক প্রো

ম্যাক প্রো-এর একটি আপডেটেড সংস্করণ নিয়ে কাজ করছে অ্যাপল। এতে ৪০টি কম্পিউট কোর ও ১২৮টি গ্রাফিক্স কোরসহ সিলিকন চিপ থাকতে পারে। এটি ম্যাক স্টুডিওতে এমওয়ান আল্ট্রার কার্যক্ষমতার দ্বিগুণ হবে।

ম্যাক মিনি

ম্যাক মিনির একটি হাই-এন্ড (high-end) সংস্করণ তৈরি করছে অ্যাপল। অতিরিক্ত পোর্ট ও অধিক শক্তিশালী সিলিকন চিপ থাকবে এতে। এক্ষেত্রে এমওয়ান প্রো ও এমওয়ান ম্যাক্স চিপস ব্যবহার করা হবে বলে আশা করা হচ্ছে। এছাড়া একটি নতুন ডিজাইন এতে যুক্ত হতে পারে। এটি কবে নাগাদ বাজারে আসবে তা নির্দিষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। তবে অ্যাপল মে বা জুনে নতুন ম্যাক উন্মোচনের পরিকল্পনা করছে।

বড় স্ক্রিনের আইম্যাক

শোনা যাচ্ছে আইম্যাকের একটি বড়-স্ক্রিনযুক্ত সংস্করণ নিয়ে কাজ চলছে, যা ২৪-ইঞ্চি মডেলের পাশাপাশি বিক্রি হবে। এটিকে ‘আইম্যাক প্রো’ বলা যেতে পারে। এতে প্রো ডিসপ্লে এক্সডিআর (XDR)-এর মতো ডিজাইন, প্রোমোশন প্রযুক্তি সহ ২৭-ইঞ্চি মিনি-এলইডি ডিসপ্লে এবং এমওয়ান প্রো বা এমওয়ান ম্যাক্স চিপ থাকতে পারে।

সেপ্টেম্বরের ইভেন্ট

সেপ্টেম্বরে বার্ষিক আইফোন-কেন্দ্রিক ইভেন্টের আয়োজন করে অ্যাপল। আইফোনের নতুন মডেলগুলোকে সামনে আনা হয় এই ইভেন্টে। এ বছর আইফোন ১৪ এবং অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৮ নিয়ে কথা বলা হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আইফোন ১৪

২০২২ সালে ৬.১-ইঞ্চি ডিসপ্লের আইফোন ১৪, ৬.৭-ইঞ্চি ডিসপ্লের আইফোন ১৪ ম্যাক্স, ৬.১ ইঞ্চি ডিসপ্লের আইফোন ১৪ প্রো এবং ৬.৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের আইফোন ১৪ প্রো ম্যাক্সসহ আইফোন ১৪ মডেলের চারটি আইফোন বাজারে ভিড়তে পারে।

আইফোন ১৪-প্রো মডেলে ‘হোল-পাঞ্চ’ ডিজাইন থাকবে। যা বৃহত্তর ডিসপ্লে থেকে খাঁজকে দূরে সরিয়ে দিবে। অন্যদিকে, সামনের দিকের ক্যামেরাটি ছোট কাটআউটে এবং ফেস আইডি হার্ডওয়্যার দ্বিতীয় পিল-আকৃতির কাটআউটে থাকবে। অন্যান্য সম্ভাব্য বৈশিষ্ট্যগুলোর মধ্যে রয়েছে, প্রো মডেলগুলোর জন্য টাইটানিয়াম ফ্রেম, ক্যামেরার উন্নতি, দ্রুততর এ১৬ চিপ এবং দ্রুততর ফাইভজি মডেম৷

অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৮

অ্যাপল ওয়াচ সিরিজ ৮-এ বেশকিছু পরিবর্তন আসতে পারে। যার মধ্যে তাপমাত্রা সংবেদন, স্লিপ অ্যাপনিয়া সনাক্তকরণ, রক্তের গ্লুকোজ পর্যবেক্ষণ এবং রক্তচাপ পরিমাপের মতো উন্নত বৈশিষ্ট্যগুলো অন্যতম। সেই সাথে সিরিজ ৮-এ গাড়ির ক্র্যাশ সনাক্তকরণ অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে। সিরিজ ৮ এর সঙ্গে একই সময়ে অ্যাপল ওয়াচ এসই আসবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

অক্টোবর/নভেম্বর ইভেন্ট

সেপ্টেম্বরের ইভেন্টের সাথে, অ্যাপল কখনও কখনও দ্বিতীয় পর্যায়ের ইভেন্টের আয়োজন করে। এখানে সাধারণত ম্যাক এবং আইপ্যাডগুলোতে ফোকাস করা হয়। এই ইভেন্টে কি দেখা যাবে তা পুরোপুরি পরিষ্কার নয়, তবে ম্যাকবুক এয়ারের একটি নতুন সংস্করণ থাকার কথা রয়েছে।

আইপ্যাড প্রো

অ্যাপল ২০২২ সালে আইপ্যাড প্রো উন্মোচন করবে বলে গুজব রয়েছে এবং এর ১১-ইঞ্চি মডেলটিও এখানে থাকতে পারে।

১৩-ইঞ্চি ডিসপ্লের ম্যাকবুক প্রো

অ্যাপল একটি আপডেটেড ১৩-ইঞ্চি ম্যাকবুক প্রো নিয়ে কাজ করছে, যা ৮-কোর জিপিইউ (GPU) এবং ৯ বা ১০-কোর জিপিইউযুক্ত পরবর্তী প্রজন্মের এমটু চিপ ব্যবহার করতে পারে। এটি রিলিজের সঠিক সময় জানা নেই, তবে এমটু চিপের সম্ভবত পতন না হওয়া পর্যন্ত বাজারে আসবে না।

স্বল্প-মূল্যের আইপ্যাড

অ্যাপল কম দামের আইপ্যাডের নতুন সংস্করণ নিয়ে কাজ করছে। যাতে আপডেটেড এ-সিরিজ চিপ অন্তর্ভুক্ত করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এয়ারপডস প্রো – অ্যাপল আরও কমপ্যাক্ট ডিজাইন এবং ওয়্যারলেস চিপযুক্ত এয়ারপড প্রো এর একটি নতুন সংস্করণ নিয়ে কাজ করছে৷

ভবিষ্যতে যা আসছে

এআর বা ভিআর হেডসেট – অ্যাপল অগমেন্টেড বা ভার্চুয়াল রিয়েলিটি হেডসেট নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করছে। যা একটি ডেডিকেটেড হাই-এন্ড ডিসপ্লে, বিল্ট-ইন প্রসেসর এবং ‘আরওএস’ বা রিয়েলিটি অপারেটিং সিস্টেম বৈশিষ্ট্যযুক্ত বলে গুজব রয়েছে। ইনপুট টাচ প্যানেল, ভয়েস অ্যাক্টিভেশন এবং হাতের অঙ্গভঙ্গির মাধ্যমে এটি পরিচালিত হবে।এর বাজার মূল্য প্রায় ৩০০০ ডলার হবে বলে জানা গেছে। এআর বা ভিআর হেডসেট ২০২২ সালের শেষে আসতে পারে। কিন্তু অ্যাপল ডেভেলপমেন্ট সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। তাই একে ২০২৩-এ নিয়ে যেতে পারে।

ফোল্ডেবল আইফোন

অ্যাপল ফোল্ডেবল আইফোন নিয়েও কাজ করছে। যা ৭.৫ থেকে ৮ ইঞ্চির মধ্যে হতে পারে। ২০২৩ সালের প্রথম দিকে এটির লঞ্চের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

অ্যাপল কার

অ্যাপলের বৈদ্যুতিক গাড়ির বিকাশে অনেকগুলি মোচড় এবং মোড় এসেছে। কিন্তু নির্ভরযোগ্য অ্যাপল বিশ্লেষক মিং-চি কুও বিশ্বাস করেন যে, অ্যাপল এখনও শুধুমাত্র একটি স্বায়ত্তশাসিত গাড়ির সফটওয়্যার অফার না করে সম্পূর্ণ স্বায়ত্তশাসিত গাড়ি তৈরির পরিকল্পনা করছে। ২০২৩ থেকে ২০২৫ এর মধ্যে এটি লঞ্চ হবে।

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল