যশোর আজ শনিবার , ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১২ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. প্রবাস
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

দিনাজপুরে বসত বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর ও আসবাবপত্র ভাংচুরের অভিযোগ

প্রতিবেদক
Jashore Post
ফেব্রুয়ারি ১০, ২০২৪ ৪:১৪ অপরাহ্ণ
দিনাজপুরে বসত বাড়িতে হামলা চালিয়ে মারধর ও আসবাবপত্র ভাংচুরের অভিযোগ
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

চন্দন মিত্র,দিনাজপুর প্রতিনিধি :: পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দিনাজপুর সদরের গুঞ্জাবাড়ী মাতাসাগর এলাকায় বাড়ির কর্তাকে না পেয়ে স্ত্রী সন্তানের উপর হামলা  ও ঘড়ের আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে কতিপয় সন্ত্রাসী বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী দিলিপ চন্দ্র পরিবার ।

শুক্রবার দুপুর আনুমানিক ২টায় গুঞ্জাবাড়ী মাতাসাগর এলাকার দিলীপ চন্দ্র রায়ের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।কোন ঘটনা ছাড়াই বাসায় অনধিকার প্রবেশ করে এ তান্ডব চালায় সন্ত্রাসী বাহিনী।স্থানীয় এলাকাবাসী এবং জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ এ কল করেই প্রানে রক্ষা পেয়েছে বলেও জানায় মাধবী রানি।

ভুক্তভোগী দিলীপ চন্দ্র রায় ও তার স্ত্রী মাধবী রায় জানান, দিনাজপুর পৌরসভাস্থ ৬নং ওয়ার্ডের গুঞ্জাবাড়ী মাতাসাগর এলাকার মৃত রনজিত কুমার রায়ের ছেলে গনেষ চন্দ্র রায় তার স্ত্রী সেলি রানী রায় ও তাদের ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী বসত বাড়িতে অনুপ্রবেশ করে এই হামলা চালায়।এ ঘটনায় দিলিপ চন্দ্র রায়ের স্ত্রী মাধবী রানি রায় বাদী হয়ে দিনাজপুর কোতোয়ালি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়,পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ৯ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টায় গুঞ্জাবাড়ী মাতাসাগর এলাকার গনেষ চন্দ্র রায়,তার স্ত্রী সেলী রানি রায়সহ ১০থেকে ১৫জন দলবদ্ধ হয়ে হাতে লোহার রড,বাঁশ,হাসুয়া ,চাকু ছোড়া নিয়ে গুঞ্জাবাড়ী জনৈক সঞ্জয় এর দোকানের সামনে দীলিপকে পেয়ে মারধর করে।

তারপর গনেষ ও তার স্ত্রী সেলি রানি জোট বেঁধে দিলীপের বাসার গেটের সামনে গিয়ে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবর বাসার দরজা খুলতে বলে।

দীলিপ চন্দ্র বাসায় না থাকায় তার স্ত্রী ও বড় মেয়ে গেট খুলতে না চাওয়ায় কয়েকজন প্রাচীর টপকে বাসায় প্রবেশ করে গেট খুলে দিলে সকলে বাসায় প্রবেশ করে অনেক খোঁজাখুঁজি করে দীলিপকে না পেয়ে ঘড়ের ভেতর ঢুকে আসবাবপত্র ভাংচুরসহ ঘরে থাকা নগদ অর্থ ও সোনা হাতিয়ে নেয় ।

এ সময় দীলিপের স্ত্রী মৌখিক প্রতিবাদ করতে আসলে তাকে লোহার রড ও বাশ দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করাসহ শ্লীতাহানি করে। মাকে বাচাতে বড় মেয়ে গোলাপী রানি এগিয়ে আসলে তাকেও গনেষের স্ত্রী সেলি রানি চুলের মুঠি ধরে শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে শারীরিক জখম করে।

জাতীয় জরুরি সেবার কল পেয়ে ঘটনাস্থলে আসা বালুবাড়ী ফুলিশ ফাড়ীর এস আই জাহাঙ্গীরের সাথে মুঠো ফোন কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান,ভুক্তভোগী পরিবারকে উর্ধতনদের নির্দেশনায় সার্বিক আইনি সহায়তা দেবার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ - সারাদেশ