যশোর আজ সোমবার , ৩ জানুয়ারি ২০২২ ১১ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. প্রবাস
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

টাকা ও মোবাইল কেড়ে নিতেই খুঁন হয় মিলন

প্রতিবেদক
Jashore Post
জানুয়ারি ৩, ২০২২ ৬:২১ অপরাহ্ণ
টাকা ও মোবাইল কেড়ে নিতেই খুঁন হয় মিলন
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

স্টাফ রিপোর্টার :: যশোরের বেনাপোল রেলওয়ে ব্যারাকের সামনে মিলন হত্যাকান্ডে জড়িত আসামী আটকের পর চাঞ্চল্যকর তথ্য মিলেছে। তার কাছে থাকা টাকা পয়সা ও মোবাইল ফোন কেড়ে নেওয়ার উদ্দেশ্যে নির্মম হত্যাকান্ডের স্বীকার মিলন।

এমনি চাঞ্চল্যকর তথ্য বের হয়ে এসেছে বলে জানান,যশোর পিবিআইয়ের পুলিশ সুপার রেশমা শারমিন।

গত ৩১ আগস্ট,বেনাপোল রেলওয়ে স্টেশন জিআরপি পুলিশ ফাঁড়ির ১০০গজ দূরে রেলওয়ে ব্যারাকের সামনে পড়ে থাকা যশোরের চুড়ামনকাঠি গ্রামের মৃত আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে মিলনের মরা দেহ উদ্ধার হয় । স্থানীয়দের খবরে বেনাপোল পোর্টথানা পুলিশ ঘটনা স্থলে পৌঁছে তার লাশ উদ্ধার শেষে পরিচয় শনাক্তের চেষ্ঠা চালিয়েও পরিচয় শনাক্ত না হওয়ায় যশোর পিবিআই সদস্যরা নিহতের ফিঙ্গারপ্রিন্ট এর মাধ্যমে তার পরিচয় শনাক্ত করেন।

মৃতদেহ শনাক্তের পর নিহতের ছেলে বিপ্লব বেনাপোল পোর্টথানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। হত্যাকান্ডটি ছিলো ক্লুলেস তাই হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনের দায়িত্ব পিবিআইয়ের উপর পড়লে তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে হত্যাকান্ডে জড়িতের অবস্থান নির্ণয় করা হয়।

যশোর পিবিআইয়ের একটি চৌকস টিম গতকাল নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার পূর্ব মধ্যপাশা গ্রাম হতে হিরো নামের ব্যাক্তিকে আটক করে। আটককৃত বেনাপোল ভবেরবেড় পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত হাত কাটা তোতার ছেলে। ইতিমধ্যেই সে পিবিআইয়ের জিঙ্গাসাবাদে হত্যাকান্ড বিষয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছে বলে সাংবাদিকদের আরো জানান যশোর পিবিআইয়ের এ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যশোর পিবি আই এর এস আই ডি এম নূর জামাল হোসেন জানান,অভিযুক্ত হিরাকে আদালতে সোপার্দ করা হলে সে হত্যাকান্ডে জড়িতের কথা স্বীকার করেন। যশোরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদ আসামির জবানবন্দি গ্রহণ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

হত্যা মামলার আসামী হীরা ও তার সহযোগীরা মাদকাসক্ত ও এলাকায় ছিনতাইসহ নানা অপরাধমূলক কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। ঘটনার দিন রাতে তারা মিলনের কাছ থেকে টাকা পয়সা ও কাগজপত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্ঠা করে। মিলন বাধা দিলে মিলনকে তারা ছুরিকাঘাত ও শ্বাসরোধ করে হত্যা শেষে স্টেশন চত্তরেই ফেলে রেখে যায়।

হিরা মিলনকে ছুরিকাঘাত করে মিলনের কাছে থাকা ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় বলে নিজে স্বীকার করেন। তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক বেনাপোল মাছ বাজারস্থ অভিযুক্তের নিজের ভাংড়ি দোকান হতে একটি সাদা প্লাস্টিকের ব্যাগ,ভিকটিমের ১কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি,দলিলের ফটোকপি ও ভিকটিমের এনআইডি কার্ডের ফটোকপি উদ্ধার হয়েছে বলে তিনি আরো জানান।

সর্বশেষ - সারাদেশ