যশোর আজ বৃহস্পতিবার , ৩০ মে ২০২৪ ৪ঠা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

শসার রস খাওয়ার যত উপকারীতা

প্রতিবেদক
Jashore Post
মে ৩০, ২০২৪ ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ
শসার রস খাওয়ার যত উপকারীতা
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

শশা এক রকমের ফল। এটা দেখতে সবুজ রঙের লম্বা আকারের হয়ে থাকে ।এই ফলে ক্যালোরির পরিমাণ কম থাকে এবং জলের পরিমাণ বেশি থাকে । খোসা সহ একটি কাঁচা শশা’র প্রতি ১০০ গ্রামে ২০ কিলো ক্যালরি শক্তি পাওয়া যায়। বাংলাদেশে শশা প্রধাণত সালাদ হিসেবে ব্যবহৃত হয়।

আমাদের মধ্যে অনেকেই নিয়মিত শসা খান। কিন্তু এই ফলের রস করে খাওয়ার কথা তাঁদের মাথায় আসে না। তবে জানলে অবাক হয়ে যাবেন, নিয়মিত এই ফলের রস খেলে কিন্তু পেটের সমস্যা দূর হবে সুস্থ থাকবে হার্ট!

শশায় রয়েছে  ভিটামিন সি, ম্যাগনেশিয়াম,পটাশিয়াম,ফাইবারের মতো একাধিক উপকারী উপাদান। তাই তো বিশেষজ্ঞরা এই গরমে সবাইকে শসা খাওয়ার পরামর্শ দেন।

তবে গরমের এই মহৌষধি ফল খেয়ে উপকার পেতে চাইলে মাঝে মধ্যে এর জ্যুস করেও খেতে পারেন। এই কাজটা করলে যেমন শরীরে জলের ঘাটতি মিটে যাবে, তেমনই একাধিক রোগও থাকবে দূরে।

এই প্রতিবেদন হতে শসার রস খাওয়ার একাধিক উপকার সম্পর্কে বিশদে জেনে নিন।

বাড়বে ইমিউনিটি

এই ভ্যাপসা গরমে দুর্বল হয়ে পড়তে পারে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। আর সেই কারণে শরীরে হানা দিতে পারে একাধিক জীবাণু। তাই বিপদের ফাঁদে পড়ার আগেই ইমিউনিটিকে চাঙ্গা করার কাজে লেগে পড়তে হবে। আর সেই কাজে আপনাকে সাহায্য করবে শসার জ্যুস। কারণ এই পানীয়ে রয়েছে ভিটামিন সি-এর ভাণ্ডার। এমনকী এতে ফোলেট, জিঙ্কের মতো উপাদানও মজুত রয়েছে। আর এইসব উপাদান কিন্তু রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর কাজে সিদ্ধহস্ত। তাই সুস্থ থাকতে চাইলে আজ থেকেই এই পানীয়ে চুমুক দেওয়া শুরু করে দিন।

​দ্রুত কাজ করবে ব্রেন​

জীবনে উন্নতির শিখরে পৌঁছাতে চাইলে ব্রেন ফাংশন বাড়াতেই হবে। আর এই উদ্দেশ্য সফল হওয়ার ইচ্ছে থাকলে আজ থেকেই শসার রস খাওয়া শুরু করে দিন। কারণ এই পানীয়ে রয়েছে ফোলেটের ভাণ্ডার। আর এই ভিটামিন কিন্তু ব্রেনের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর কাজে সিদ্ধহস্ত। এমনকী এই রসের গুণে বাড়ে স্মৃতিশক্তি। সেই সঙ্গে মনোসংযোগ করতেও সুবিধা হয়। আর এই বিষয়গুলি মাথায় রেখেই বিশেষজ্ঞরা নিয়মিত শসার রস খাওয়ার পরামর্শ দেন।

পেটের সমস্যা উড়ে যাবে​

আমাদের মধ্যে অনেকেই নিয়মিত গ্যাস, অ্যাসিডিটির ফাঁদে পড়ে কষ্ট পান। কিন্তু তারপরও এই সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় খুঁজে পান না। যদিও ভালো খবর হল, পেটের সমস্যায় ভুক্তভোগীরা নিয়মিত শসার জ্যুস খেলে উপকারই পাবেন। কারণ এই পানীয়ে এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা হজমশক্তি বাড়ানোর কাজে সিদ্ধহস্ত। এমনকী এই পানীয়ের গুণে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাকেও সহজেই বাগে আনা যায়। তাই এসব সমস্যায় ভুক্তভোগীরা আজ থেকেই এই পানীয়ে চুমুক দিন।

ক্ষয়ে যাবে না হাড়

বয়স ৩০-এর গণ্ডি পেরলেই হাড়ের সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে কষ্ট পান অনেকে। তাই বিপদের ফাঁদে পড়ার আগেই আপনাকে হাড়ের জোর বাড়ানোর কাজে লেগে পড়তে হবে। সেক্ষেত্রে ডায়েটে দুগ্ধজাত খাবার রাখার পাশাপাশি নিয়মিত সেবন করুন শসার জ্যুস। ব্যস, তাতেই হাড়ের জোর বাড়বে। এমনকী জয়েন্টে হবে না প্রদাহ। তাই তো বিশেষজ্ঞরা সকলকে নিয়মিত এই পানীয় খাওয়ার পরামর্শ দেন।

হার্ট থাকবে সুস্থ-সবল​

হার্ট হল আমাদের শরীরের রক্ত পাম্প করার যন্ত্র। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে আমাদের অত্যধিক ফাস্টফুড প্রীতি এই অঙ্গের বাজিয়ে দিচ্ছে বারোটা। এমনকী এই কারণে অল্প বয়সেই পিছু নিচ্ছে হৃদরোগ। তাই পরিস্থিতি আরও খারাপ দিকে যাওয়ার আগেই হার্টের হাল ফেরানোর কাজে লেগে পড়তে হবে। আর সেই কাজে সাফল্য পেতে চাইলে নিয়মিত পান করুন শসার রস। কারণ এই পানীয়ে রয়েছে ভিটামিন বি১-এর ভাণ্ডার। আর এই উপাদান কিন্তু হার্টের স্বাভাবিক কাজকর্মে সাহায্য করে। তাই আজ থেকেই ডায়েটে এই পানীয়কে জায়গা করে দিন।

 

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল