যশোর আজ সোমবার , ৩০ মে ২০২২ ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

ভোলায় সাবেক এমপি’র গাড়িতে হামলা ও ভাঙচুর

প্রতিবেদক
Jashore Post
মে ৩০, ২০২২ ৪:৫৭ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।


কামরুজ্জামান শাহীন,ভোলা প্রতিনিধি:: ভোলায় সাবেক এমপি’র গাড়িতে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। ভোলা-৩ ( লালমোহন-তজুমদ্দিন ) আসনের আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য মেজর ( অব.) মোঃ জসিম উদ্দিনের গাড়িতে স্থানীয় ছাত্রলীগ-যুবলীগের কর্মীরা এই হামলা করেছেন বলে অভিযোগ উঠছে।

ভোলায় সাবেক এমপি’র গাড়িতে হামলা

রোববার( ২৯ মে ) দুপুরে ওই হামলায় গাড়ির সামনের ও পেছনের গ্লাস ভেঙে গেছে বলে জানা যায়। পরে পুলিশি পাহারায় তাঁকে নিরাপদ স্থানে পৌঁছে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় মোঃ জসিম উদ্দিন তজুমদ্দিন থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।


তজুমদ্দিন থানার পরিদর্শক মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, কিছু অপরিচিত যুবক, সম্ভবত ছাত্রলীগ-যুবলীগের কর্মী হবেন, তাঁরা মোঃ জসিম উদ্দিনের গাড়িতে হামলা করেছেন। তাঁকে নিরাপদে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। তবে এ ঘটনায় মেজর জসিম কোনো লিখিত অভিযোগ জমা দেননি।

জসিম উদ্দিন থানায় দেওয়া লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেছেন যে, গত ২৭ মে ভোলার লালমোহন উপজেলার নিজ বাড়িতে বেড়াতে আসেন তিনি। রোববার দুপুরে বৃষ্টির ভেতরে তিনি ও তাঁর স্ত্রী তজুমদ্দিন উপজেলায় বেড়াতে যান। জোহরের নামাজ শেষে তাঁরা তজুমদ্দিন শহরে প্রবেশ করলে ( থানার গেট বরাবর) ২০ থেকে ২৫ জন যুবকের একটি দল তাঁদের গাড়ির পথরোধ করে দাঁড়ায়। ওই দলের নেতৃত্বে ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দেওয়ানের নাতি। তাঁরা গালিগালাজ করে গাড়ি ভাঙচুর করেন।


জসিম উদ্দিন বলেন,এ সময় তাঁর স্ত্রী গাড়ি থেকে নেমে ওই দলটিকে প্রতিহত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু তারা সরেনি। তখন তিনি বাধ্য হয়ে গাড়িতে থাকা স্কিপিং রোপ ( দড়ি ) দিয়ে দুজনকে আঘাত করেন। তখন দলটি পাশের কাঠের দোকান থেকে লম্বা লম্বা কাঠের চ্যালা এনে তাঁদের ওপর তেড়ে আসে। উপায় না দেখে পকেট থেকে পিস্তল বের করলে দলটি দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে।


জসিম উদ্দিন অভিযোগ করেন, হামলাকারীরা পুনরায় দল ভারী করে এসে পুলিশের উপস্থিতিতে তাঁদের গালিগালাজ করতে থাকে। তখন পুলিশ সদস্যরা সন্ত্রাসী দলটিকে প্রতিহত না করে তাঁদের ও গাড়িটিকে থানার ভেতরে নিয়ে যায়। দলটি থানার ভেতরে প্রবেশ করে পুনরায় পুলিশের সামনে গাড়ি ভাঙচুর করে। এ সময় চালকের কাছে থাকা জসিমের মুঠোফোন কেড়ে নিতে ধস্তাধস্তি করে। পরে তিনি একটি অভিযোগ লিখে থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তার কাছে জমা দেন। অবস্থা বেগতিক দেখে পুলিশ জসিম ও তাঁর স্ত্রীকে লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়ন পর্যন্ত পৌঁছে দেয়।https://jashorepost.com/%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a7%9f%e0%a7%8b%e0%a6%97-%e0%a6%b9%e0%a6%ac%e0%a7%87-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a7%81%e0%a6%b2-%e0%a6%96%e0%a6%be%e0%a7%9f%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%97%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a7%81/

তজুমদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলুল হক দেওয়ান অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন,তিনি ঘটনার সময়ে তজুমদ্দিন ছিলেন না। লালমোহনের সীমানায় সালিসে ছিলেন। তারপরও জসিম উদ্দিন যে অভিযোগ দিচ্ছেন, তা সত্য নয়।


সর্বশেষ - লাইফস্টাইল