যশোর আজ মঙ্গলবার , ১৯ জুলাই ২০২২ ১৭ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. জবস
  7. জাতীয়
  8. প্রবাস
  9. ফিচার
  10. বিনোদন
  11. ভ্রমণ
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

ধূমপানের যত ক্ষতিকর দিক রয়েছে

প্রতিবেদক
Jashore Post
জুলাই ১৯, ২০২২ ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
ধূমপানের ছবি
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

ধূমপান একটি মারাত্মক ক্ষতিকর ও বিপদজনক অভ্যাস।ধূমপানের যত ক্ষতিকর দিক রয়েছে তা জেনেও অনেকেই দেদারছে ধূমপান করছে।আবার অধিকাংশ ধূমপায়ী ধূমপানের মারাত্মক ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে অবহিত নন।

চুরুট, সিগারেট এবং পাইপের মাধ্যমে জ্বলন্ত ধোঁয়া নিঃশ্বাসের সাথে টেনে নেওয়া এবং তা বের করে দেওয়ার প্রক্রিয়াকেই সাধারণত ধূমপান বলে।

ধূমপানের ক্ষতিকর দিক সমূহ তুলে ধরা হলো

সিগারেটের ধোঁয়ায় যে নিকোটিন থাকে তা হিরোইন অপেক্ষা শক্তিশালী।ধূমপানকারী দেশে ও সমাজে সর্বমহলে একজন ঘৃণিত ব্যক্তি হিসাবেই বিবেচিত হয়।
ধূমপান হল অপচয়। ধূমপান মানুষের জ্ঞান-বুদ্ধি লোপ করে। কারণ সে নিশ্চিত জানে যে ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর, তারপরও সে তা পান করে।ধূমপায়ী তার ছেলে-সন্তান এবং উত্তরসূরীদের জন্য একজন আদর্শহীন ব্যক্তিতে পরিণত হয়।

ধূমপানের অভ্যাস একজন মানুষকে ছিয়াম পালন হতে বিরত রাখে। কারণ ছিয়াম রাখলে সে ধূমপান করতে পারে না। ধূমপান মানুষের অপমৃত্যু ঘটায়।ধূমপানের কারণে শরীরে তাপ বৃদ্ধি,প্রদাহ,জ্বালাপোড়া ইত্যাদি দীর্ঘ মেয়াদি রোগ-ব্যাধি দেখা যায়।ধূমপানের কারণে রক্তনালিগুলো দুর্বল হয়ে যায় এবং অনেক সময় তার রক্ত চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

ধূমপানকারীর ফুসফুস, মুত্রথলি, ঠোঁট, মুখ, জিহ্বা ও কণ্ঠনালি, কিডনী ইত্যাদিতে ক্যান্সার হয়।ধূমপান স্মরণশক্তি কমিয়ে দেয় এবং মনোবল দুর্বল করে দেয়।ইন্দ্রিয় ক্ষমতা দুর্বল করে। বিশেষ করে ঘ্রাণ নেয়া এবং স্বাদ গ্রহণের ক্ষমতা লোপ পায়।

ধূমপানের ফলে মানুষ দুর্বল হয়ে পড়ে এবং বার বার সে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়। ধূমপায়ী সব সময় দুর্বলতা অনুভব করে এবং আতঙ্কগ্রস্ত থাকে।হার্টের সাথে সম্পৃক্ত ধমনিগুলো ব্লক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল হয়। এমনকি বক্ষ ব্যাধিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

ধূমপান উচ্চ রক্ত চাপের কারণ হয়।ধূমপানের ফলে যৌনশক্তি বিলুপ্ত হতে থাকে।ধূমপানের ফলে হজমশক্তি কমে যায়, ধারণক্ষমতা লোপ পায় এবং শরীর ঢিলে হয়ে যায়।ধূমপানের ফলে পাকস্থলী ক্ষত হতে থাকে এবং যকৃৎ শুকিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।ধূমপানের ফলে মুত্রথলি যক্ষ্মায় আক্রান্ত হয় এবং প্রস্রাব বিষাক্ত হয়।

ধূমপায়ীদের শ্রবণশক্তি কমে যায়। সম্প্রতি উইনকনসিন বিশ্ববিদ্যালয় ৩৭৫০ জন লোকের উপর এক সমীক্ষা চালায়।সেখানে লক্ষ্য করা যায় যে,অধূমপায়ীদের চেয়ে ধূমপায়ীদের শ্রবণশক্তি কমার সম্ভাবনা শতকরা ৭০ ভাগ বেশী।

আন্তর্জাতিক স্বাস্থ্য সংস্থার প্রতিবেদনে প্রকাশিত হয়েছে যে,সমগ্র পৃথিবীতে ধূমপানের কারণে যত বেশি অপমৃত্যুর ঘটনা ঘটে,অন্য কোন রোগ-ব্যাধির কারণে তত ঘটে না।

সর্বশেষ - সারাদেশ