যশোর আজ মঙ্গলবার , ২ জুলাই ২০২৪ ২রা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অর্থনীতি
  3. আন্তর্জাতিক
  4. আমাদের যশোর
  5. খেলা
  6. গল্প
  7. জবস
  8. জাতীয়
  9. প্রবাস
  10. ফিচার
  11. বিনোদন
  12. রাজনীতি
  13. রান্না
  14. রূপচর্চা
  15. লাইফস্টাইল

খাগড়াছড়িতে পানিবন্দি সহস্রাধিক পরিবার

প্রতিবেদক
Jashore Post
জুলাই ২, ২০২৪ ৬:২৫ অপরাহ্ণ
খাগড়াছড়িতে পানিবন্দি সহস্রাধিক পরিবার
সর্বশেষ খবর যশোর পোস্টের গুগল নিউজ চ্যানেলে।

খোকন বিকাশ ত্রিপুরা জ্যাক ( খাগড়াছড়ি ) জেলা প্রতিনিধি :: টানা ভারী বর্ষণে খাগড়াছড়িতে বন্যার পাশাপাশি ব্যাপক পাহাড় ধস দেখা দিয়েছে। পাহাড়ি নিম্নাঞ্চল পানির নিচে তলিয়ে সহস্রাধিক পরিবার পানিবন্দি হয়ে পড়েছে।

চেঙ্গী ও মাইনী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।পাহাড় ধস ও বন্যা পরিস্থিতি আরো অবনতি হওয়ার আশংকা রয়েছে। খোলা হয়েছে ১০০টি আশ্রয় কেন্দ্র।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে। খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গার সাপমারায় ভোর রাতে পাহাড় ধসের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ মাটি সরিয়ে ৪ ঘন্টার পর সড়ক যোগাযোগ সচল হয়। এ দিকে পাহাড় ধসে খাগড়াছড়ি শহরের শালবাগান,হরিনাথ পাড়া,রুসুলপুর ও মেহেদীবাগ বেশ কিছু বাড়ী-ঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

বন্যা কবলিত এলাকার দৃশ্য

কোন ধরনের হতাহত না হলেও সম্পদের ক্ষতি হয়েছে। অপর দিকে দীঘিনালার কবাখালী ও মেরুং এলাকায় সড়ক পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় রাঙামাটির সাজেক ও লংগদুর সাথে খাগড়াছড়ির সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হয়ে গেছে। খাগড়াছড়ি শহরে শালবাগানে পাহাড় ধসে কয়েকটি বাড়ীঘর ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

খাগড়াছড়ি পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাসকারীদের নিরাপদে সরে যেতে মাইকিং চলছে।ভোর ৬ টার দিকে জেলা শহরের মুসলিম পাড়ার একাংশ, মিলনপুর,কল্যাণপুর,মেহেদিবাগ, উত্তর ও দক্ষিণ গঞ্জপাড়া, শান্তিনগর ও বাঙ্গালকাটির একাংশ এলাকায় পানির নিচে তলিয়ে গেছে। লোকজন বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান নিয়েছে।

খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী জানান,পৌর এলাকায় ১৫টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বসবাসরত ও পানিবন্দি পরিবারগুলোকে নিরাপদ আশ্রয় কেন্দ্রে আসার জন্য মাইকিং চলমান রয়েছে।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মোঃ সহিদুজ্জামান জানান, পুরো জেলায় ১০০টি আশ্রয় কেন্দ্ৰ খোলা হয়েছে। সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।

পাহাড়ের পাদদেশে অবৈধভাবে বসবাসকারীদের বিদ্যুৎ ও পানি সংযোগ বিচ্ছিন্নসহ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

সর্বশেষ - লাইফস্টাইল